নবাব সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে ক্লাইভের যুদ্ধ ঘোষণা এবং নবাবের পরাজয়ের কারণ কি? - অ্যান্সগুরু
35 বার প্রদর্শিত
"পড়াশোনা" বিভাগে করেছেন

এই প্রশ্নটির উত্তর দিতে দয়া করে প্রবেশ কিংবা নিবন্ধন করুন ।

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন
পলাশীর যুদ্ধ ভারতীয় উপমহাদেশে একটি যুগান্তকারী ঘটনা। আলীনগরের সন্ধি স্থাপিত হলেও রবার্ট ক্লাইভ সিরাজ-উদ-দৌলাকে নবাব হিসেবে গ্রহণ করতে পারেন নি। সুযােগ পেলেই তিনি নবাবের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে দ্বিধা করেন নি।

সিরাজের বিরুদ্ধে ইংরেজদের মনোভাব : ইউরোপে সপ্তবর্ষব্যাপী যুদ্ধের সূত্র ধরে বাংলাদেশে ইংরেজ ও ফরাসিদের মধ্যে যুদ্ধ হয়। নবাবের নিষেধ সত্ত্বেও ১৭৫৭ খ্রিষ্টাব্দে ক্লাইভ ফরাসিদের চন্দননগর অধিকার করেন।ফলে আত্মরক্ষার জন্য ফরাসিগণ মুর্শিদাবাদে আশ্রয় গ্রহণ করেন। সিরাজ ইংরেজদের উদ্ধুত অচরণে তাদেরকে সমুচিত শাস্তি বিধানের জন্য দাক্ষিণাত্যের ফরাসি সেনাপতি বুসির সাথে পত্রালাপ করেন।

ক্লাইভের সাথে মীরজাফর ও অন্যদের ষড়যন্ত্র: মুশিদাবাদে নবাব কর্তৃক ফরাসিদের আশ্রয় প্রদান এবং বুসির সাথে পত্রালাপের গুরুত্ব অনুধাবন করে সুচত্র ক্লাইভ মুর্শিদাবাদের সিংহাসনে সিরাজের পরিবর্তে তার মনোনীত প্রার্থীকে অধিষ্ঠিত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হলেন। তার এ ঘৃণিত কাজের সহযােগী হলেন কয়েকজন স্বার্থপর বিশ্বাসঘাতক দেশায় ব্যাক্ত। তারা প্রথম থেকেই স্বাধীনচেতা তরুণ নবাবের আচরণে বিক্ষদ্ধ হয়ে তাকে সিংহাসনচ্যুত করে আলাবদী খা-এর ভন্নপতি মীরজাফরকে সিংহাসনে বসানাের ঘৃণ্য যড়ুযন্তর লিও্ত ছিলেন। ষড়যন্ত্রকারীদের মধ্যে ছিলেন ধনকুবের জগৎশেষ্ঠ, মীরজাফর, রাজবল্লভ, রায়দুর্লভ এবং উমিচাদ। ক্লাইভ সময়ের গুরুত্ব উপলব্ধি করে নবাবের সন্ধিশর্ত ভঙ্গ করেন এবং নবাব বিরােধী যড়যন্ত্রে জড়িয়ে পড়লেন। মীরজাফর আলী খাঁ নবাবির বিনিময়ে ইংরেজদেরকে চুক্তি প্রকাশের হুমকি প্রদান করলে ক্লাইভ কৌশলে তাকে প্রচুর অর্থ প্রদানের অঙ্গীকারে একটি চুক্তিপত্র তৈরি করেন। ওয়াটসন এ জাল চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করলে ক্লাইভ নিজেই তা স্বাক্ষর করেন।

সিরাজের বিরুদ্ধে ক্লাইভের যুদ্ধ ঘােষণা : ক্লাইভ দেশীয় বিশ্বাসঘাতকদের সাথে ষড়যন্ত্র পাকাপােক্ত করে নবাবের বিরুদ্ধে সন্ধিভঙ্গের অভিযােগ আনয়ন করে যুদ্ধ ঘোেষণা করেন। নবাব ইংরেজদের দুরভিসন্ধিমূলক কার্যকলাপে পূর্ব থেকেই সচেতন ছিলেন। তিনি ৫০ হাজার পদাতিক এবং ২৮ হাজার অশ্বারােহী এক বিশাল বাহিনী মুর্শিদাবাদের ২৩ মাইল দক্ষিণে ভাগীরথী নদীর তী মােতায়েন করলেন। ধুরন্ধর ক্লাইভ ৩ হাজার ইংরেজ ও দেশীয় সৈন্দর্যের এক বাহিনীসহ পলাশী আম্রকাননে অবস্থান গ্রহণ করলেন। অতঃপর ১৭৫৭ সালে ভাগীরথী নদীর তীরে পলাশী আম্রকাননে এক খগযুদ্ধ সংঘটিত হয়। মীরজাফর আলী খকাইভের সাথে পূর্ব চুক্তি মতো তাঁর রিশা বাহিনীসহ যুদ্ধক্ষেত্রে নিলিপ্তের ভূমিকা পালন করেন।অন্যদিকে নবাবের একনিষ্ঠ ভক্ত এব দেশপ্রেমিক মােহনলাল ও মীরমদন প্রাণপণ যুদ্ধ করে ইংরেজদের ওপর কঠিন, আঘাত হেনে ইংরে সৈন্যকে বিপর্যপ্ত করে পলাশীর আমবাগানে আশ্রয় নিতে বাধ্য করেন। এ সময়ে হঠাৎ মীরমদন গােলার আঘাতে নিহত হন। মােহনলালও ফরাসি বীর সিনক্রে প্রাণপণ যুদ্ধ চালিয়ে যেতে থাকেন কিন্তুর মীরমদনের মৃত্যুতে নবাব হতৃভস্থ এবং অতিশয় বিচলিত হয়ে পড়েন।

যুদ্ধবিরতি যাষণা : তিনি তাক্ষণিক সিপাহসালার মীরজাফর আলী খাকে ডেকে অনেক অনুনয়- বিনয় এমনকি পবিত্র কুরআন শপথের মধ্য দিয়ে মুকুট তথা দেশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য অনুরোধ করেন। মীরজাফর আলী খ নবাবকে মৌখিক আনুগত্য অতিমাত্রায় প্রদর্শন করে ক্লাইভের সাথে পর্ব স্বাক্ষরিত যড়যন্ত্র মােতাবেক নবাবের সর্বনাশ সাধনের চেষ্টা করতে থাকেন। সেনাপতি মােহনলা সিনফ্রে প্রাণপণ যুদ্ধ করে যখন নবাবের বিজয়কে সুনিশ্চিত করেন ঠিক এমনি মুহুর্তে মীরজাফরের পরামর্শে নবাবের যুদ্ধ বিরতির ঘােষণায় তারা অত্যধিক মর্মাহত হন।

সিরাজের পরাজয় ও মৃত্যু : বিশ্বাসঘাতক মীরজাফরের পরামর্শে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা ধরে নবাব তাঁর সর্বনাশ ডেকে আনেন। নবাবের সৈন্যগণ যখন রণে ভঙ্গ দিয়ে বিশ্রামরত ঠিক এমনি আজ পাল্টা আক্রমণ করে মবাবের সৈন্যবাহিনীকে ছত্রভঙ্গ করে যলেন পরাজিত হয়ে পুনরায় মুশিদাবাদে ফিরে এসে সৈন্য সংগ্রহের বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা স্বীয় স্ত্রী লুৎফুননেছা এবং কন্যার হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। পরিশেষে নবাব রাজমহল প্রত্যাবর্তনের পথে ভগবান গােলার ঘাটে ধূত হয়ে মীরজাফরের পুত্র মিরনের নির্দেশে নির্মমভাবে নিহত হন। পলাশীর প্রান্তরে অবশেষে বিশ্বাসঘাতকদেরই জয় হয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
12 অক্টোবর 2021 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md. Redowan lslam
0 টি উত্তর
23 সেপ্টেম্বর 2021 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Redowan
1 উত্তর
27 নভেম্বর 2021 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md. Redowan lslam
অ্যান্সগুরু বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি অনলাইন কমিউনিটি। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করতে পারবেন ৷ আর অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে অবদান রাখতে পারবেন ৷

1,381 টি প্রশ্ন

1,164 টি উত্তর

5 টি মন্তব্য

50,720 জন সদস্য

3 Online Users
2 Member 1 Guest
Online Members
Today Visits : 3867
Yesterday Visits : 9030
Total Visits : 337405
...